৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং | ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাজাপুরে বিদ্যালয়ের বেহাত হওয়া ভূ-সম্পত্তি উদ্ধারের দাবিতে অবস্থান

রেজাউল ইসলাম পলাশ, রাজাপুর (ঝালকাঠি)ঃ ঝালকাঠির রাজাপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে বেহাত হওয়া ভূ-সম্পত্তি উদ্ধারের দাবিতে চলমান আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে আন্দোলনকারীরা।

বৃহস্পতিবার বেলা ১০টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত বিদ্যালয়ের গেটের সম্মুখে এ অবস্থান কর্মসূচী চলে। বিদ্যালয়ে বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের শত শত মানুষ মাথায় লাল কাপড় বেঁধে অবস্থান কর্মসূচীতে অংশ নেয়।

এ সময় প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ক্ষমতার দাপটে লিজ কিংবা ভাড়া দেয়ার নামে ক্রমাগত আত্মসাৎ, অবৈধভাবে বেদখল ও লুটপাটের কবলে পড়ে দখলচ্যুত হয়ে যাওয়া ভূ-সম্পত্তির লিজ বাতিলসহ উদ্ধারের যথাযথ ব্যবস্থা অবিলম্বে গ্রহনের দাবি জানান বক্তাগণ।

এ সময় বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড.খাইরুল আলম সরফরাজ, মুক্তিযোদ্ধা এনায়েত হোসেন খান মিলু, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সঞ্জিব কুমার বিশ্বাস, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহ্ আলম নান্নু, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিলন মাহমুদ বাচ্চু, সাবেক ছাত্রনেতা নাসির উদ্দিন তালুকদার জুয়েল ও স্কুল স্টুডেন্ট কেবিনেটের নির্বাচিত মোঃ মুবিন ও মোঃ হাসিব প্রমুখ। বক্তারা বলেন, আমরা সবাই আন্দোলন করছি, বিদ্যালয়ের বেহাত হওয়া সম্পত্তি বিদ্যালয়কে উদ্ধার করে দিতে। বিদ্যালয়ের এক ইঞ্চি জমিও বেদখলে থাকা চলবে না। প্রয়োজনে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি বাঁচাতে আমরা প্রধান মন্ত্রীর দপ্তর পর্যন্ত যাবো। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বেহাত হওয়া সম্পত্তি উদ্ধারে যদি অবিলম্বে তৎপর না হয়, তাহলে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন সাবেক অধ্যক্ষ জাহিদ হোসেন খান, সাবেক প্রধান শিক্ষক গৌরাঙ্গ লাল সাহা, মুক্তিযোদ্ধা জয়রাম তেওয়ারি, মুক্তিযোদ্ধা প্রান বল্লভ সাহা যুবদল উপজেলা সভাপতি জাকারিয়া সুমন, সাবেক ছাত্রনেতা ও বিআরডিবি চেয়ারম্যান আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ, জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি দুলাল তেওয়ারি, সহ প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্ররা। এর আগেও মানববন্ধন, মৌন মিছিল, গণস্বাক্ষর কর্মসূচিসহ নানা কর্মসূচি গত ৪৭ দিন যাবৎ পালন করছেন আন্দোলনকারীরা।

ফেসবুক