১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নির্মমকাণ্ড! তালা চুরির অভিযোগে শিশুকে বৈদ্যুতিক শক!

অনলাইন ডেস্ক: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে মুরগির খামারের দরজার তালা চুরির ঘটনায় মিনহাজ (৪) নামের এক শিশুকে বৈদ্যুতিক শক দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মিনহাজের বাবা দিনমজুর জামাল হোসেন বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে খামার মালিক তোফায়েল আহমেদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছে।

এর আগে বিকালে উপজেলার কেরোয়া ইউনিয়নের মীরগঞ্জ বাজারের পাশে ইসমাইল বেপারীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যায় মা লাভলী বেগম আহত ছেলে মিনহাজকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন।

শিশুর পরিবারের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মিনহাজ মীরগঞ্জ বাজার হাফেজিয়ার মাদরাসার ছাত্র। একই এলাকায় তার বাড়ি। প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার সকালে মিনহাজ মাদরাসায় যায়। দুপুরে মাদরাসা ছুটি হলেও সে বাড়িতে আসেনি। এজন্য তার মা লাভলী বেগম তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করে। এরপর্যায়ে মুরগির খামার থেকে ছেলের কণ্ঠে চিৎকার শুনেন লাভলী। সেখান থেকে তিনি ছেলেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করেন। এসময় লাভলীর চিৎকারে খামার মালিক তোফায়েল পালিয়ে যান। তোফায়েল গত তিন বছর মিটার না নিয়ে অবৈধ সংযোগ দিয়ে খামারে বিদ্যুৎ ব্যবহার করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

মিনহজের মা লাভলী বেগম বলেন, তোফায়েল আমার শিশু ছেলের মাথা ও ঘাড়ে বৈদ্যুতিক শক দিয়ে জখম করেছে। আমার ছেলে নাকি তার খামারের দরজার তালা চুরি করেছে। ছেলের অবস্থা দেখে আশপাশের লোক ডাকতে চিৎকার দিলে তোফায়েল পালিয়ে যায়।

খামারি তোফায়েল আহমেদ জানান, মিনহাজ তার খামারের দরজার তালা চুরি করেছে। এ কারণে তাকে শক দেওয়ার ভয় দেখানো হয়েছে। তাকে মারধর করা হয়নি। কর্মকর্তাদের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েই মিটার ছাড়া সংযোগ নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার করছি।

এ ঘটনায় কেরোয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সোহেল হোসেন জানান, শিশুর মা-বাবা ঘটনাটি তাকে জানিয়েছেন। ঘটনাটি মর্মান্তিক। উভয়পক্ষের সিদ্ধান্তে স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হবে।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল জলিল বলেন, শিশুর বাবা ঘটনাটি জানিয়েছে। খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print
ফেসবুক