২৮শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বাউফলে গৃহবধূর কান কেটে নিলেন স্বামী

জনপত্র ডেস্ক: পটুয়াখালীর বাউফলে যৌতুকের টাকা না পেয়ে মোসা. রাবেয়া খাতুন নামে এক গৃহবধূর কান কেটে দেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ সোমবার বাউফল থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন স্বামী মাহাবুব আলম ও শ্বশুর কালু হাওলাদারসহ পরিবারের সদস্যরা।

অভিযোগে বলা হয়, ২০১৩ সালে মাহবুব আলমের সঙ্গে রাবেয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় তার বাবা তার স্বামীকে আনুষঙ্গিক আসবাব পত্র  উপহার দেন। বিয়ের চার বছর পর স্বামী মাহাবুব তার কাছে যৌতুক দাবি করে।

ওই সময়ে নগদ টাকা দিতে না পারায় মাহাবুব তার শ্বশুরের কাছ থেকে ৪৫ শতাংশ জমি রেজিস্ট্রি করিয়ে নেন। পরে মাহবুব আরও দুই লাখ টাকা দাবি করে বসে। তিনি ওই টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে রাবেয়া ওপর শারীরিক ও  নির্যাতন শুরু করে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

এ ঘটনা জানার পর রাবেয়ার বাবা ও বড় ভাই গত ২৪ এপ্রিল সকালে তার স্বামীর বাড়ি যায় এবং স্থানীয় লোকজন নিয়ে সালিশ বৈঠক করেন। সালিশ বৈঠক চলাকালে তার স্বামীর নেতৃত্বে পরিবারের অন্যান্য লোকজন তাদের ওপর হামলা করে।

একপর্যায়ে ধারালো দা দিয়ে গৃহবধূর বাম কান কেটে দেয় এবং ওই অবস্থায় তাকে সন্তানসহ তাড়িয়ে দেয়। পরে স্থানীয়রা বাবা ও ভাইকে উদ্ধার করে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print
ফেসবুক