১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আজ মুখিামুখি হচ্ছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

রিও ডি জেনেরিওর ক্ষত শুকানোর আগে ব্রাজিলের সামনে আবারও আর্জেন্টিনা। এবার কাতার বিশ্বকাপের কনমেবল অঞ্চলের বাছাই পরীক্ষা। গুরুত্বের দিক থেকে জুন-জুলাইয়ে কোপা ফাইনালের ধারেকাছে না হলেও দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাতে দোষ কী! ব্রাজিল কোচ তিতে সেটাই চাইছেন শিষ্যদের কাছ থেকে। অন্যদিকে আর্জেন্টিনাও জিততে মরিয়া। কোপা আমেরিকায় শক্তিশালী ব্রাজিলকে হারিয়ে শিরোপা জেতায় আত্মবিশ্বাসটা তাদের তুঙ্গে। এমন নির্ভার সময়ে আরও একবার ব্রাজিলকে ডোবাতে চায় তারা। বাংলাদেশ সময় আজ রাত ১টায় সাও পাওলোতে শুরু হবে ম্যাচটি। যে মঞ্চে এর আগে কখনও মুখোমুখি হয়নি দু’দল।

নেইমারের শহর সাও পাওলো। বিশ্বের অন্যতম জনবহুল শহর এটি। শৈশবে যেখানে বেড়ে ওঠা এই সময়কার তারকা নেইমারের। ফুটবল জীবন শুরুও এখান থেকে। তারই মঞ্চ নিও কুইমিকা অ্যারেনায় মেসিরা আজ অতিথি। বাছাইয়ের এই ধাপে নিজ নিজ ম্যাচে এরই মধ্যে জয় তুলে নিয়েছে দুই দল। চিলিকে ১-০ গোলে হারিয়ে তিন পয়েন্ট তুলে নেয় টেবিলের শীর্ষে থাকা ব্রাজিল। আর আর্জেন্টিনা ভেনেজুয়েলাকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে ব্রাজিলকে দিয়ে রাখল চোখ রাঙানি। যদিও চিলির বিপক্ষে গোল করা ব্রাজিলের একমাত্র ফুটবলার এভারটন রিভেরোও জয় ছাড়া কিছুই দেখছেন না। দলকে আরও তিন পয়েন্ট উপহার দিতে অবদান রাখতে চান নিজেও, ‘টানা সাত ম্যাচ জেতা ঐতিহাসিক। আমরা এটাকে আটে রূপ দিতে চাই।’ ব্রাজিল গোলকিপার ওয়েভারতনও জেতার কথাই বলেছেন জোরেশোরে, ‘ম্যাচটা কঠিন হবে আমরা জানি। তবে সেভাবে আমাদের প্রস্তুত করতে চাই। আমাদের টার্গেট এবার জয় নিয়ে মাঠছাড়া।’
যদিও ব্রাজিল আগের মতো এই ম্যাচেও পাচ্ছে না নিয়মিত তারকাদের। নেইমার ছাড়াও বড় মাপের তারকা থাকবে না বললেই চলে। যুক্তরাজ্যের করোনা নিয়মের কারণে প্রিমিয়ার লিগে খেলা তুখোড় গোলকিপার অ্যালিসন বেকারও আসতে পারেননি। থাকবেন না রবের্তো ফিরমিনো, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, থিয়েগো সিলভার মতো চেনা মুখ। তবু ঘরের মাঠে ব্রাজিলকে খাটো করে দেখার সুযোগ নেই। তারুণ্যনির্ভর দল নিয়ে পূর্ণশক্তির আর্জেন্টিনাকে চমকে দিতে চায় তিতের দল। তবে আর্জেন্টিনার জন্য স্বস্তির খবর। তাদের আক্রমণভাগ অন্য সময়ের চেয়ে এখন ফর্মে। লিওনেল মেসির নিরন্তন চেষ্টার সঙ্গে যে কোনো সময় দলকে এগিয়ে নেওয়ার সামর্থ্য রয়েছে লাওতারো মার্টিনেজের। গত ম্যাচেও তিনি বল পায়ে দলকে গোল এনে দেন। এরপর তো ব্রাজিলকে হারানোর কথাই বলেছিলেন জোর দিয়ে, ‘ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচটা নিঃসন্দেহে দুর্দান্ত হবে। আসলে এই ম্যাচগুলো অনন্য। যার আগে আমাদের প্রস্তুতিও থাকবে সর্বাত্মক। আমরা চেষ্টা করব কোপা আমেরিকায় যেভাবে পারফর্ম করেছি সেভাবে আরেকবার ম্যাচটা খেলতে।’

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on print
Print
ফেসবুক